ঢাকা শনিবার, মে ২৫, ২০১৯

ঝালকাঠির ভাটারকান্দায় স্বতন্ত্র নিয়মে বিদ্যালয় চালান প্রধান শিক্ষক

অনলাইন ডেস্ক আপডেট: March 31, 2019

ঝালকাঠি প্রতিনিধি:ঝালকাঠিতে ৭৫নং ভাটারাকান্দা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক উত্তম কুমার দে ও সহকারি শিক্ষক শাহনাজ পারভিনের বিরুদ্ধে এন্তার অভিযোগ পাওয়া গেছে। তারা সরকারী নিয়ম নীতির কোন তোয়াক্কা করছেন না। সকাল নয়টায় স্কুলে হাজির থাকার কথা থাকলেও তাঁরা বিদ্যালয়ে আসছে ইচ্ছে সময় মত। সকাল ১০টার পরে স্কুলে গিয়ে দুপুর দেরটা থেকে দুইটায় ছুটি দিয়ে দিয়ে বাড়ি যান। এটা তার অলিখিত নিয়ম বলে অনেকেই জানে।

ঐ বিদ্যালয়ের কিছু শিক্ষার্থীর অভিভাবক ও স্থানীয়দের অভিযোগের ভিত্তিত্বে ৩০ মার্চ বিদ্যালয়ে সরেজমিনে গিয়ে জানাযায় ৫ জন শিক্ষকের মধ্যে একজন রয়েছে পিটিআই ট্রেনিংয়ে এবং অপর একজন রয়েছে মাতৃত্বকালীন ছুটিতে রয়েছে। বিদ্যালয়ের নিয়মিত তিন জন শিক্ষকের মধ্যে প্রধান শিক্ষক ১০টা ৪৫ মিনিটে ও সহকারী শিক্ষক শাহানজ পারভীন ৯ টা ৩৫ মিনিটে বিদ্যালয়ে আসেন। সহকারী শিক্ষক সাইদুল ইসলামকে সকাল নয়টায় হাজির পাওয়া যায়। স্থানয়রা জানান এ বিদ্যালয়টি সকাল ১০টায়ই শুরু হয়।
শাহনাজ পারভীন জানান গ্রামের ছেলে মেয়েরা বিদ্যালয়ে আসে দেরী করে।
প্রধান শিক্ষক উত্তম কুমার দে জানান আমরা এভাবেই (এই সময়েই) প্রতিদিন বিদ্যালয়ে আসি।
অপর দিকে স্থানীয়রা জানান, প্রধান শিক্ষক উত্তম কুমার দে’র খুটির জোর অনেক দুর। তাই তিনি নিজে এমন অলিখিত নিয়ম চালু করে রেখেছেন। এমনকি অনেক সময়ই তিনি হাজিরা খাতায় সহি না করেই স্কুল ত্যাগ করেন। পরের দিন হাজিরা খাতায় সহি করেন। অনিয়মের বিষয়টি জানাজানি হলে প্রধান শিক্ষক উত্তম কুমার দে সংবাদকর্মিদের এ সংবাদ প্রকাশ না করার অনুরোধ করেন। কিন্তু তাদের বিদ্যালয়ের আসার এ অনিয়মের কথা জেলা শিক্ষা কর্মকর্তাকে ফোনে জানালে প্রধান শিক্ষক সংবাদিকদের উপর ক্ষেপে যান। এ ঘটনায় সংবাদ প্রকাশ হলে তিনি সাংবাদিকদের দেখে নেয়ার হুমকি দিয়েছেন। তিনি মামলা দিয়ে বুঝিয়ে দিবেন যে শিক্ষকের বিরুদ্ধে সংবাদ করলে কি হয়। তিনি দম্ভ করে বরেন যে সংবাদ করলে তার কিছুই হবেনা। তার প্রসাশনিক ও রাজনৈতিক অনেক লোক আছে।
স্থানীয়রা আরও জানান, শিক্ষকরা একদিনেই ১৫ দিনের হাজিরা খাতায় স্বাক্ষর করে থাকেন।
এ বিষয়ে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো: নবেজ উদ্দিন সরকার জানান, অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। এ ঘটনায় তিনি সহকারি শিক্ষা কর্মকর্তা সমিরেন্ধু বিশ্বাসকে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য নির্দেশনা দিয়েছেন বলেও তিনি সংবাদিকদের জানান।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন